Sat. Feb 4th, 2023

    …………………………

    এ বছর সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন তানজানিয়ার সাহিত্যিক আবদুলরাজাক গুরনাহ। তবে নিজের নোবেল পাওয়ার খবর কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না সদ্য বিশ্বব্যাপী পরিচিতি পাওয়া এই সাহিত্যিক। নোবেল কর্তৃপক্ষের দেয়া ফোনকে এতটাই অবিশ্বাস হচ্ছিল যে, তিনি রীতিমতো কলদাতাকে ধমক দিয়েছিলেন।
    ……
    আবদুলরাজাক তখন চা তৈরি করছিলেন। ঠিক এমন সময় তার ফোন বেজে ওঠে। ফোন ধরে নোবেল পাওয়ার কথা শুনে বিশ্বাস না করে উল্টো বিরক্ত হন তিনি। মজার এই ঘটনাটি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে নিজেই জানিয়েছেন আবদুলরাজাক।

    …………………………

    সাক্ষাৎকারে আবদুলরাজাক বলেন, ‘ঘটনাটি মধ্যাহ্নভোজের কিছুক্ষণ আগের। নিজের জন্য চা তৈরি করছিলাম আমি। ঠিক সেই সময় ফোন বেজে ওঠে। ভাবলাম, কোনো বিক্রয় প্রতিনিধি হবে হয়তো। ফোন ধরলাম। ফোনে এক ব্যক্তি বললেন, হ্যালো, আপনি সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন। আমি বললাম, দূর হও! আমাকে একা থাকতে দাও।’

    মূলত নিজের পুরস্কার জেতার খবর কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না আবদুলরাজাক। সেই ফোনে বিশ্বাস না করলেও পরে অবশ্য তিনি বিশ্বাস করেছিলেন, সাহিত্যের নোবেল যে তার হাতেই উঠেছে।

    আবদুলরাজাক গুরনাহ নোবেল পেয়েছেন তার লেখা ‘প্যারাডাইস’ নামের একটি উপন্যাসের জন্য। বৃহস্পতিবার নোবেল বিজয়ী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করে সুইডিশ অ্যাকাডেমি।

    ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের জাঞ্জিবার দ্বীপে ১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন আবদুলরাজাক গুরনাহ । ১৯৬০ দশকের শেষের দিকে শরণার্থী হিসেবে তিনি পাড়ি জমিয়েছিলেন ইংল্যান্ডে। তিনি এখন পর্যন্ত মোট ১০টি উপন্যাস লিখেছেন। এ ছাড়া তার লেখা বেশ কয়েকটি ছোটগল্পও রয়েছে।

    …………………………

    আবদুলরাজাক নিজে শরণার্থী থাকায় তার লেখায় জীবন্ত হয়ে উঠেছে শরণার্থীদের জীবনের নানা জটিলতা। পাশাপাশি ঔপনিবেশিকতার দুর্দশাও দারুণভাবে প্রতিভাত হয়েছে তার লেখায়।

    ২০১৯ সালে সাহিত্যে নোবেল পেয়েছিলেন অস্ট্রিয়ার লেখক পিটার হান্ডকে। এরপরের বছর অর্থাৎ গত বছর সাহিত্যের নোবেল উঠেছিল যুক্তরাষ্ট্রের কবি লুইস গ্লাকের হাতে।