Fri. Feb 3rd, 2023

    …………………………

    ছোট বেলা থেকে বাবার স্বপ্ন ছিল বড় হয়ে ছেলেরা উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হবে। দেশের স্বীকৃত কোনো বিশ্বিবদ্যালয়ে পড়বে। তাই তো মা মরা ছেলেদের আগলে রেখেছিলেন মা-বাবার স্নেহে। অবশেষে সেই স্বপ্ন ধরা দিয়েছে। তাইতো খুশিতে আত্মহারা বাবা রেজাউল করিম চৌধুরী।
    ……
    বলছিলাম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ‘সি’ ইউনিটে প্রথম হওয়া তাহসিনুল করিম চৌধুরী এবং তার যমজ ভাই তাহমিদুল করিম চৌধুরীর বাবা রেজাউল করিমের অনুভূতির কথা। ছেলেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়েছেন। আবারও একজন প্রথম হয়েছেন এমন বিষয় তিনি ভাবতেই পারছেন না।

    …………………………

    তাদের বাড়ি চট্টগ্রামের নন্দন কাননে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০২০-২১ স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ১০৮.২৫ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছেন তাহসিনুল এবং ৩৫৩ তম হয়েছেন ছোটভাই তাহমিদুল।

    তারা ছোটবেলা থেকেই বেড়ে উঠেছেন চট্টগ্রামে। পড়েছেন চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট কলেজে। তাদের বাবা রেজাউল করিম পেশায় ব্যাবসায়ী এবং মা কুলসুম চৌধুরী মারা যান ২০১২ সালে। তাহসিনুল মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে পেয়েছে জিপিএ ৫।

    এ বিষয়ে তাহসিনুল করিম চৌধুরী বলেন, আমার অটুট লক্ষ্য ছিল এবং নিজের প্রতি বিশ্বাস ছিল। একাগ্রতা ও পরিশ্রম আমার এই ফলাফল এনে দিয়েছে। আমার ছোটভাই ও অনেক পরিশ্রম করেছে। তার সিরিয়াল একটু পরে হলেও ভালো ফলাফল করেছে।

    …………………………

    তিনি বলেন, আমার খুশি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। বাবা স্বপ্ন দেখতেন ভালো কোথাও পড়াশোনা করবো। বাবার সেই ইচ্ছে পূরণ করতে পেরেছি তাতেই আমার তৃপ্তি। এ সময় তিনি চবির ফিন্যান্স বিভাগে পড়তে চাওয়ার আশা প্রকাশ করেন।

    চবির ‘সি’ ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর ও ব্যাবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সালামত উল্ল্যাঁ ভূঁইয়া বলেন, তাহসীনুল ‘সি’ ইউনিটে প্রথম হয়েছেন। নিঃসন্দেহে সে কঠোর পরিশ্রম করেছে এবং তার ফলাফলও পেয়েছে। আমাদের চাওয়া বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে সে ভালো করে পড়াশোনা করে আলোকিত মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হোক।