Sat. Dec 9th, 2023

    …………………………

    কানাইঘাটে মালচিং পদ্ধতিতে তরমুজ চাষ করে সাফল্য পেয়েছেন মাদ্রাসাছাত্র আশিকুর রহমান। তরমুজ চাষে তাঁর সফলতার খবর এখন এলাকার সবার মুখে। স্থানীয়রা জানান, মালচিং পদ্ধতিতে ব্ল্যাক সুইট তরমুজ চাষের খবর এর আগে এলাকার কেউ জানতেন না। আশিকুর ইউটিউব দেখে বাড়ির পাশে প্রায় ২৪ শতক জায়গা বর্গা নিয়ে মালচিং পদ্ধতিতে ব্ল্যাক সুইট তরমুজ চাষ শুরু করেন।
    …….
    কানাইঘাট উপজেলার দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের বাউরভাগ পশ্চিম গ্রামে কৃষক ইলিয়াছ আলীর ছেলে আশিকুর। গাছবাড়ি জামিউল উলুম কামিল মাদ্রাসার ফাজিল ১ম বর্ষের ছাত্র তিনি। লেখাপড়ার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ করেন এ তরুণ। সম্প্রতি মালচিং পদ্ধতিতে ব্ল্যাক সুইট তরমুজ ও কিরা চাষ করে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছেন। এলাকার লোকজনের কাছে আশিক এখন সফল ও স্বাবলম্বী।

    …………………………

    আশিকুর রহমান বলেন, আমি কৃষক পরিবারের সন্তান। লেখাপড়ার পাশাপাশি বাড়িতে না বসে বাবাকে কৃষি কাজে সহযোগিতা করতাম। করোনাকালে হঠাৎ ইউটিউবে মালচিং পদ্ধতিতে তরমুজ চাষের ভিডিও দেখে চাষে আগ্রহী হই। এরপর বগুড়া থেকে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে বীজ সংগ্রহ করে চাষ শুরু করি। এখন আমার তরমুজ চাষ দেখতে প্রতিদিন বিভিন্ন গ্রাম থেকে লোকজন আসছে।

    আশিকের বাবা ইলিয়াছ আলী বলেন, প্রথমে ছেলের এই কাজ পছন্দ করিনি। এখন তাঁর এই চাষ পদ্ধতিতে তরমুজের ফলন দেখে আমি খুবই খুশি। কারণ মালচিং পদ্ধতিতে তরমুজ চাষে ফলন খুবই ভালো হয়েছে।

    …………………………

    এলাকার বাসিন্দা আরিফুর রহমান বলেন, আমি প্রথমে বিশ্বাস করতে পারিনি। মালচিং পদ্ধতিতে ব্ল্যাক সুইট তরমুজের ফলন এত ভালো হবে। আমরা এবার আশিকের চাষ পদ্ধতি অনুসরণ করছি। ভবিষ্যতে আমরা এভাবে মালচিং পদ্ধতিতে তরমুজ চাষ করব।

    এ বিষয়ে কানাইঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. এমদাদুল হক বলেন, মালচিং পদ্ধতিতে ব্ল্যাক সুইট তরমুজ ও কিরা চাষে আশিকের সফলতার খবর শুনেছি। এ পদ্ধতি কানাইঘাটের জন্য নতুন একটি বিষয়। আমরা তাঁকে যতটুকু পারি সহযোগিতা করব। পাশাপাশি অন্যান্যে এ চাষ পদ্ধতিতে উৎসাহী করব।