Wed. Feb 1st, 2023

    …………………………

    চ্যাম্পিয়ন: ফ্রান্স
    রানার্স আপ: ক্রোয়েশিয়া
    গোল্ডেন বুট: হ্যারি কেন (ইংল্যান্ড)
    গোল্ডেন বল: লুকা মড্রিচ (ক্রোয়েশিয়া)
    গোল্ডেন গ্লাভস: থিবো কোর্তোয়া (বেলজিয়াম)
    সিলভার বল: বেলজিয়ামের অধিনায়ক ইডেন হ্যাজার্ড
    ব্রোঞ্জ বল: ফ্রান্সের অ্যান্তোনি গ্রিজম্যান
    সিলভার বুট: ফ্রান্সের গ্রিজম্যান
    ব্রোঞ্জ বুট: বেলজিয়ামের রোমেলু লুকাকু

    …………………………

    ফিফার সেরা উদীয়মান ফুটবলার: ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপ্পে
    ফেয়ার প্লে ট্রফি: রাশিয়া বিশ্বকাপে ফিফা ফেয়ার প্লে ট্রফি জিতেছে স্পেন
    ম্যান অব দ্য ফাইনাল: অ্যান্তোনি গ্রিজম্যান।
    দ্রুততম গোল: থমাস মিউনিয়ের (বেলজিয়াম ৪মিনিট)
    তৃতীয় স্থান: বেলজিয়াম
    প্রথম ম্যাচ:রাশিয়া-সৌদি আরব
    প্রথম রেফারি:নেস্টর পিটানা (আর্জেন্টিনা)
    প্রথম কিক:সৌদি আরব

    প্রথম কর্নার:রাশিয়া
    প্রথম থ্রো:সৌদি আরব
    প্রথম ফাউল:ওমার হাওশাই (সৌদি আরব)
    প্রথম ফ্রি-কিক:আলেকজান্ডার সামেদভ (রাশিয়া)
    প্রথম গোল:ইউরি গ্যাজিনস্কি (রাশিয়া)
    হেড থেকে প্রথম গোল:ইউরি গ্যাজিনস্কি (রাশিয়া)

    …………………………

    প্রথম অ্যাসিস্ট:আলেক্সান্ডার গোলভিন (রাশিয়া)
    প্রথম পেনাল্টি থেকে গোল:ইউরি গ্যাজিনস্কি (রাশিয়া)
    প্রথম হ্যাটট্রিক:ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (পর্তুগাল)
    প্রথম পেনাল্টি মিস:লিওনেল মেসি (আর্জেন্টিনা)
    প্রথম আত্মঘাতি গোল:আজিজ বুহাদ্দুজ (মরক্কো)

    প্রথম হলুদ কার্ড:আলেক্সান্ডার গোলভিন (রাশিয়া)
    প্রথম লাল কার্ড:কার্লোস সানচেজ (কলম্বিয়া)
    পঞ্চাশতম গোল:লুকা মদ্রিচ (ক্রোয়েশিয়া)
    শততম গোল:লিওনেল মেসি (আর্জেন্টিনা)
    ফেয়ার প্লের মাধ্যমে আউট হওয়া দল:সেনেগাল
    দ্রুততম হলুদ কার্ড:জেসুস গালারডো (মেক্সিকো)

    ভিআরএর মাধ্যমে প্রথম গোল:রাশিয়া-সৌদি আরব
    ভিআরএর মাধ্যমে প্রথম পেনাল্টি:ফ্রান্স-অস্ট্রেলিয়া
    বদলি হিসেবে নেমে গোল:আর্টেম জিউবা (রাশিয়া)
    দ্রুততম পরিবর্তন:ডেনিস চেরিশেভ (রাশিয়া)
    সর্বোচ্চ গোলদাতা:হ্যারি কেন (৬ গোল)
    সর্বোচ্চ গোল প্রদানকারী দেশ:বেলজিয়াম ১৬টি
    কম গোল হজমকারী দেশ:উরুগুয়ে

    …………………………

    সর্বোচ্চ গোলরক্ষাকারী: থিউবো কর্তোয়া (বেলজিয়াম)
    মোট গোল:১৬৯টি
    মোট হলুদ কার্ড:২১৯টি
    সর্বোচ্চ হলুদ কার্ড দেখা দল:পানামা (১১টি)
    মোট লাল কার্ড:৪টি

    শেষ গোল: মানজুকিচ
    মোট পাস: ৪৯৬৫১
    ম্যাচ প্রতি গড় গোল: ২.৬
    হলুদ কার্ডের গড়: ৩.৫
    লাল কার্ডের গড়: ০.০৬
    ম্যাচে গড় পাস: ৭৭৫.৮

    সর্বোচ্চ আক্রমণকারী দল: ক্রোয়েশিয়া (৩৫২)
    সেরা পাস: ইংল্যান্ড (৩৩৩৬)
    সেরা রক্ষণ (সেভ): ক্রোয়েশিয়া (৩০১)
    গোলমুখে সর্বোচ্চ চেষ্টা: নেইমার (ব্রাজিল)
    সবচেয়ে বেশি দৌড়েছেন: ইভান পেরেসিচ (৭২ কিমি)
    সবচেয়ে বেশি পাস (খেলোয়াড়): সার্জিও র‍্যামোস (স্পেন)
    ফাইনাল ম্যাচের রেফারি: নেস্তর পিটানা (আর্জেন্টিনা)

    ট্রফির ওজন: ৬ কেজি
    চ্যাম্পিয়ন দলের পুরষ্কার: ৩৮ মিলিয়ন ডলার (প্রায় ৩১৮ কোটি টাকা)
    রানার্স আপ দলের পুরষ্কার: ২৮ মিলিয়ন ডলার (প্রায় ২৩৪ কোটি টাকা)
    অংশগ্রহনকারী দেশ: ৩২টি
    তৃতীয় দল:২০১ কোটি ৬ লাখ টাকা
    চতুর্থ দল:১৮৪ কোটি ৩০ লাখ টাকা
    পঞ্চম-অষ্টম (শেষ আট) :১৩৪ কোটি ৪ লাখ টাকা
    নবম-১৬তম (দ্বিতীয় রাউন্ড):১০০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা

    …………………………

    ১৭-৩২তম (গ্রুপ পর্ব):৩৩ কোটি ৫১ লাখ টাকা
    বিশ্বকাপ ফাইনালে আত্মঘাতী গোল করা প্রথম ফুটবলার ক্রোয়েশিয়ার মারিও মানজুকিচ।
    কোচ ও অধিনায়কের ভূমিকায় বিশ্বকাপ জেতা মাত্র দ্বিতীয় ব্যক্তি হলেন দিদিয়ের দেশম।
    তৃতীয় সর্বকনিষ্ঠ হিসেবে বিশ্বকাপ জিতলেন এমবাপ্পে।
    বিশ্বকাপের সবচেয়ে বয়স্ক খেলোয়াড় এসাম এল-হাদারি। মিসর, ৪৫ বছর ১৬১ দিনে বিশ্বকাপে নামেন।
    বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি বয়সে হ্যাটট্রিক করেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, ৩৩ বছর বয়সে।
    ষষ্ঠ দল হিসেবে একাধিকবার বিশ্বকাপ জেতার রেকর্ড গড়ল ফ্রান্স। সর্বোচ্চ ব্রাজিল (৫ বার)।

    বিশ্বকাপ ফাইনালে গোল করে কিলিয়ান এমবাপ্পে (১৯ বছর ২০৭ দিন) পেলের পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হলেন, যিনি ২০ বছরের কম বয়সে ফাইনালে গোল করলেন। পেলে করেছিলেন ১৯৫৮ বিশ্বকাপে (১৭ বছর ২৪৯ দিন বয়সে)।
    পরবর্তী বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ: কাতার
    অনুষ্ঠিত হবে: ২১ নভেম্বর, ২০২২ থেকে ১৮ ডিসেম্বর, ২০২২ এর মধ্যে
    ৪৮ দলের অংশগ্রহনে বিশ্বকাপ হবে: ২০২৬ সালে কানাডা, মেক্সিকো এবং যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ আয়োজনে